জুলাই ১৬, ২০২৪ - ৩:৩৪ পূর্বাহ্ণ
Homeজাতীয়৩ সপ্তাহের বন্যায় কুলাউড়ায় ক্ষতির পরিমাণ ৫০ কোটি টাকা

৩ সপ্তাহের বন্যায় কুলাউড়ায় ক্ষতির পরিমাণ ৫০ কোটি টাকা

spot_img

তিমির বনিক, স্টাফ রিপোর্টার: টানা ৩ সপ্তাহের বন্যায় মৌলভীবাজারের কুলাউড়া পৌর এলাকার ৬টি ওয়ার্ড কবলিত হয়েছে। এতে ক্ষয়ক্ষতির পরিমান প্রায় ৫০ কোটি টাকা। বন্যা আরও স্থায়ী হলে ক্ষয়ক্ষতির পরিমান আরও বাড়তে পারে।

রোববার (৭ জুলাই) কুলাউড়া পৌর মেয়র অধ্যক্ষ সিপার উদ্দিন আহমদ সংবাদ সম্মেলন করে এমন আশঙ্কা প্রকাশ করেন। গত ২১ দিনে সরকারি ত্রাণ বলতে শুধু মাত্র ১৪ মেট্রিক টন চাল ও ১২০ পরিবারের মাঝে শুকনো খাবার বিতরণ করা হয়। এছাড়া পৌরসভার পক্ষ থেকে রান্না করা খাবার বিতরণ করা হয়েছে। যা প্রয়োজনের তুলনায় অপ্রতুল। এজন্য তিনি সমাজের বিত্তবান, বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনকে বানভাসি মানুষদের খাদ্য সহায়তা প্রদানে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।

জানা যায়, গত ১৭ জুন (ঈদের দিন থেকে) কুলাউড়া উপজেলাসহ পৌর এলাকার অধিকাংশ বন্যার পানিতে প্লাবিত হয়। পৌরসভায় প্রথমে ২টি এবং পরে আরও ২টি সহ মোট ৪টি আশ্রয় কেন্দ্র খোলা হয়। এতে ১১৯টি পরিবারের ৪শতাধিক মানুষ আশ্রয় নেন। বন্যায় পৌরসভার ১ নং ওয়ার্ড সম্পুর্ণ এবং ২, ৩, ৪, ৫ ও ৬ নং ওয়ার্ড আংশিক প্লাবিত হয়। বন্যাসহ অতিবৃষ্টির কারণে পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ডে ১৮ কিলোমিটার রাস্তা, ১২ কিলোমিটার ড্রেন, এক হাজার ঘর-বাড়ি, ১৮টি কালভার্ট, ১০টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, ২টি কাঁচা বাজার, অনেক মসজিদ, বিভিন্ন গবাদিপশুর খামার, পুকুর, অফিস আদালতের ব্যাপক ক্ষতিসাধিত হয়েছে। এতে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ প্রায় ৫০ কোটি টাকা হবে।

পৌর মেয়র অধ্যক্ষ সিপার উদ্দিন আহমদ জানান, চলমান বন্যা পরিস্থিতিতে বন্যাকবলিত দূর্ভোগগ্রস্থ মানুষের জন্য খাদ্য সহায়তা পুন:রায় প্রদান করাসহ তা বৃদ্ধি, বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ রাস্তাঘাট, বাড়ী-ঘর, কালভার্ট ও অন্যান্য অবকাঠামো দ্রুত মেরামত ও পূনর্নির্মাণ এবং দীর্ঘস্থায়ী জলবদ্ধতা দূরীকরণে স্থায়ী পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য জোর দাবী জানান। তাছাড়া কুলাউড়া পৌরসভায় বন্যাকবলিত মানুষের জন্য বিভিন্ন স্কুল ও কলেজে আশ্রয়কেন্দ্র খোলা হয়েছে। এসব আশ্রয় কেন্দ্রগুলোতেও মানুষ স্যানিটেশন এবং বিশুদ্ধ পানিয়, জলের তীব্র সঙ্কট। পৌরসভায় একটি আলাদাভাবে বন্যা আশ্রয়কেন্দ্র স্থাপন করার দাবী জানান মেয়র।

সংবাদ সম্মেলনে এসময় উপস্থিত ছিলেন পৌর কাউন্সিলর লোকমান আলী, জহিরুল ইসলাম খছরু, সাইফুর রশীদ সুমন, আতাউর রহমান চৌধুরী সোহেল ও মহিলা কাউন্সিলর সুলতানা বেগম লাইলি, পৌর সচিব শরদিন্দু রায় প্রমূখ।

অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ