শেয়ার বাজার

১১ বছরের মধ্যে ডিএসই’র সর্বোচ্চ রাজস্ব জমা

নিজস্ব প্রতিবেদক : সদ্য বিদায়ী (২০২১-২২) অর্থবছরে সরকারের রাষ্ট্রীয় কোষাগারে ২৯০ কোটি ৮৮ লাখ টাকা রাজস্ব জমা দিয়েছে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই)। যা গত ১১ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ।

ডিএসইর তথ্য মতে, ২০২১ সালের ০১ জুলাই থেকে ২০২২ সালে ৩০ জুন পর্যন্ত সময়ে মোট ২৪০ কর্মদিবসে লেনদেন হয়েছে ৩ লাখ ১৮ হাজার ৭২০ কোটি টাকার বেশি। সেখান থেকে সরকার ২৯০ কোটি ৮৮ লাখ টাকার রাজস্ব পেয়েছে। এর মধ্যে ব্রোকার হাউজের সাধারণ বিনিয়োগকারীদের শেয়ার কেনাবেচা থেকে কমিশন বাবদ সরকার রাজস্ব পেয়েছে ২১৮ কোটি টাকা। আর উদ্যোক্তা-পরিচালকদের শেয়ার বিক্রি থেকে রাজস্ব পেয়েছে ৭২ কোটি ৮৮ লাখ টাকা।

রাজস্ব আয় বাড়ার কারণ হিসেবে সংশ্লিষ্টরা বলছেন, ২০২১-২২ অর্থবছরের প্রথম ৮ মাস আগের বছরের চেয়ে বেশি লেনদেন হয়েছে। এছাড়াও বিদায়ী বছরে প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিওর) মাধ্যমে ৬ টি কোম্পানি পুঁজিবাজার থেকে ৬৯৯ কোটি ৩৬ লাখ টাকা উত্তোলন করেছে। এগুলো পুঁজিবাজারে লেনদেন শুরু করেছে। পাশাপাশি একই সময়ে ৭ টি প্রতিষ্ঠানকে বন্ড ছেড়ে পুঁজিবাজার থেকে সাড়ে ৫ হাজার কোটি টাকা উত্তোলনের করেছে। পুঁজিবাজারে লেনদেন বাড়ায় সরকার পুঁজিবাজার থেকে রাজস্ব বেশি পেয়েছে।

নিয়ম অনুসারে, সরকার ব্রোকার হাউজ থেকে লেনদেনের উপর ০.০৫ শতাংশ হারে কর নেয়। আর উদ্যোক্তা-পরিচালকদের শেয়ার বিক্রি থেকে ৫ শতাংশ হারে কর নেয়।

জানা গেছে, বিদায়ী অর্থবছরে আগের বছরের তুলনায় ২৪ কোটি ৪৩ লাখ টাকা বেশি রাজস্ব দিয়েছে ডিএসই। ২০২০-২১ অর্থবছরে সরকারের রাজস্ব আয় হয়েছিল ২৬৬ কোটি ৪৫ লাখ টাকা। সেই বছর ব্রোকার হাউজের লেনদেন থেকে রাজস্ব আয় হয়েছিল ১৮০ কোটি ১৭ লাখ টাকা। আর উদ্যোক্তা-পরিচালকদের শেয়ার বিক্রি বাবদ আয় হয়েছিল ৮৬ কোটি ২৯ লাখ টাকা। ফলে ২০২০-২১ অর্থবছরের তুলনায় ২০২১-২২ বছরের ২৪ কোটি ৪৩ লাখ টাকার বেশি রাজস্ব পেয়েছে সরকার। যা শতাংশের হিসেবে ৯.১৭ শতাংশ বেশি।

এর আগে, ২০১২-১৩ সালে রাজস্ব আদায় হয়েছিল ২৭২ কোটি টাকা। তারপরের বছগুলোতে যথাক্রমে ২০১৩-১৪ সালে ১২৭ কোটি টাকা, ২০১৪-১৫ সালে ১৫৪ কোটি টাকা, ২০১৫-১৬ সালে ১৭৪ কোটি টাকা, ২০১৬-১৭ সালে ১৫৮ কোটি টাকা, ২০১৭-১৮ সালে ২৪৬ কোটি টাকা, ২০১৯-১৯ সালে ২৩৩ টাকা, ২০১৯-২০ সালে ২৫১ কোটি টাকা এবং ২০২০-২১ সালে ১০৪ কোটি টাকা সরকারকে রাজস্ব দিয়েছে ডিএসই।

আরো খবর »

ডিএসই পরিচালক হাবিবুল্লাহ বাহার আর নেই

aysha akter

মধুমতি ব্যাংকের এমডি ও সিইও সফিউল আজমের পুনঃনিয়োগ

aysha akter

ডিবিএর সাথে বিএসইসির সভা অনুষ্ঠিত

aysha akter