খেলাধূলা

ভারতের স্বপ্নভঙ্গ! রুট-বেয়ারস্টোর জোড়া শতরানে রেকর্ড জয় ইংল্যান্ডের

স্পোর্টস ডেস্ক : পারল না টিম ইন্ডিয়া। জো রুট ও জনি বেয়ারস্টোর মারমুখী ব্যাটিং ও জোড়া শতরানের কাছে লাঞ্চের আগেই অসহায় আত্মসমর্পণ করল ‘মেন ইন ব্লু’ ব্রিগেড। বিপক্ষের উইকেট নেওয়া তো অনেক দূরের কথা, রুট ও বেয়ারস্টোর অবিচ্ছেদ্য জুটি এজবাস্টন টেস্ট জয়ের সঙ্গে সিরিজে সমতাও ফেরাল। চতুর্থ উইকেটে ৩১৬ বলে ২৬৯ রানের জুটি ম্যাচ ঘুরিয়ে দিল। ইংল্যান্ড জিতল সাত উইকেটে।

৩৭৮ রান তাড়া করতে নেমে চতুর্থ দিন দারুণ কামব্যাক করেছিল ইংল্যান্ড। শুরুটা দুর্দান্ত করেন অ্যালেক্স লিস (৫৬) এবং জ্যাক ক্রলি (৪৬)। প্রথম উইকেটে ১০৭ রান যোগ করেছিলেন দুই ওপেনার। সেই ধারা বজায় রাখেন রুট ও বেয়ারস্টো। ফলে চতুর্থ দিনের শেষে ৩ উইকেটে ২৬০ রান তুলে নিয়েছিল বেন স্টোকসের দল। মাত্র ৫৭ ওভারে এসেছিল এই রান। রান রেট ৪.৫৬।

জেতার জন্য আর দরকার ছিল ১১৯ রান। পঞ্চম দিনের প্রথম ওভার থেকে জেট গতির মেজাজে রান তুলতে থাকেন দুই অভিজ্ঞ ব্যাটার। ‘স্টপ গ্যাপ’ অধিনায়ক জসপ্রীত বুমরা চতুর্থ দিন যে ভুল করেছিলেন, সেই ভুলের রিক্যাপ এ দিনও দেখা গেল। এত কম রান রুখে দেওয়া বর্তমান ক্রিকেটে অবস্তাব। তবে এটাও ঠিক যে বিরাট কোহলির মতো আগ্রাসী মেজাজের মানুষ মাঠে থাকার পরেও, দলের মধ্যে লড়াকু মনোভাব দেখা গেল না। ফলে হেসেখেলে ম্যাচ জিতে সিরিজে সমতা ফেরাল সাহেবরা।

রুট তাঁর টেস্ট কেরিয়ারের ২৮তম টেস্ট শতরান সেরে ফেলার পাশাপাশি চলতি বছরে তিনটি শতরান। এই জয়ের নেপথ্যে থাকা রুট ১৪২ অপরাজিত রইলেন। খেললেন ১৭৩ বল। মারলেন ১৯টি চার ও ১টি ছয়। তবে শুধু রুট নয়, তাঁর পার্টনারকেও কুর্নিশ জানাতেই হবে। তিনি বেয়ারস্টো। শেষ চার টেস্টে এই চারটি শতরান করে ফেললেন তিনি। নটিংহ্যামে নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে প্রথম টেস্টে ১৩৬ রান করেছিলেন। কিউইদের বিরুদ্ধে দ্বিতীয় টেস্টের দুই ইনিংসে ছিল ১৬২ এবং অপরাজিত ৭১। আর এ বার ভারতের বিরুদ্ধেও বিস্ফোরক মেজাজে ব্যাট চালিয়ে করলেন জোড়া শতরান। প্রথম ইনিংসে ১০৬ রানের পর এ বার তিনি ম্যাচ জেতানো ১১৪ রানে অপরাজিত রইলেন। ১৪৫ বলে করা এই ইনিংসে মারলেন ১৫টি চার ও ১টি ছয়।

এজবাস্টন টেস্টের প্রথম তিনদিন চালকের আসনে ছিল ভারত। সেটা নিয়ে সন্দেহের অবকাশ নেই। কিন্তু চতুর্থ দিন দ্বিতীয় ইনিংসে শেষ ৫৫ রানে ৬ উইকেট চল যাওয়া, এবং পরে নখ দন্তহীন বোলিং সিরিজ জয়ের আশা ভেস্তে দিল। বুমরার নেতিবাচক ফিল্ডিং সেট, ক্যাচ ফেলে দেওয়া ও সর্বোপরি পেসাররা সঠিক জায়গায় বল রাখতে না পারার জন্যই বার্মিংহ্যামে টেস্ট হারের সঙ্গে সিরিজ জয়েরও সুযোগ হারাল ভারতীয় দল।

এই টেস্ট জয়ের সঙ্গে আরও একটি রেকর্ড গড়ল ইংল্যান্ড। সাহেবদের দীর্ঘ টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে এই প্রথমবার সর্বোচ্চ রান তাড়া করল ইংল্যান্ড। এর আগে ২০১৯ সালের অ্যাশেজে স্টোকস হেডিংলের মাঠে ২১৯ বলে ১৩৫ রানে অপরাজিত ছিলেন। সেই সুবাদে ৩৫৯ রান তাড়া করে জিতেছিল ইংল্যান্ড। তিন নম্বরে রয়েছে আরও একটি হেডিংলে টেস্ট। ২০০১ সালে অ্যাশেজে ৩১৫ রান তাড়া করে অস্ট্রেলিয়াকে হারিয়েছিল ইংল্যান্ড।

২০০৭ সালে রাহুল দ্রাবিড়ের সঙ্গে নেতৃত্বে শেষবার ইংল্যান্ডের মাটিতে টেস্ট সিরিজ জিতেছিল ভারত। তবে কোচ রাহুলের এই সিরিজ জেতার সাধ পূরণ হল না। দক্ষিণ আফ্রিকার পর এ বার বিলেতেও কোচ হিসেবে খাতা খুলতে পারলেন না ‘দ্য ওয়াল’।

সূত্র-জি২৪ঘন্টা।

আরও পড়ুন:

পুরুষদের সমান ম্যাচ ফি পাবে নিউজিল্যান্ড নারী ক্রিকেটাররা

ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ছাড়তে চান রোনালদো

দলগতভাবে ভাল করার তাগিদ মাহমুদুল্লাহর

আরো খবর »

ব্যালন ডি’অরের সংক্ষিপ্ত তালিকাতেও নাম নেই মেসি-নেইমারের

Arif Hasan

দেশে ফিরেছেন সাকিব, বিসিবির সঙ্গে বৈঠক আজ

উজ্জ্বল হোসাইন

আর্জেন্টিনার বিপক্ষে স্থগিত ম্যাচ খেলবে না ব্রাজিল

উজ্জ্বল হোসাইন