অর্থ-বাণিজ্য

সাতক্ষীরায় তরমুজের কেজি ৫ টাকা, ক্রেতা শূন্য বাজার, বিপাকে ব্যবসায়ীরা!

শহীদুজ্জামান শিমুল, সাতক্ষীরা প্রতিনিধি : সাতক্ষীরার বাজারে প্রতিমণ তরমুজ এখন পাইকারি ২০০ টাকা। তবুও মিলছে না ক্রেতা। খুচরা দোকানে প্রতি কেজি ৫-১৫ টাকা। অথচ ১০দিন আগেও সাতক্ষীরার বাজারে তরমুজ বিক্রি হয়েছে ৫০-৬০ টাকা কেজি দরে। হঠাৎ ধ্বস নেমে যাওয়ায় বিক্রোতাদের দাবী বাজারে সরবরাহ বেশী হওয়ায় তরমুজের দাম কমে গেছে।

ব্যবসায়ী ও বিক্রেতাদের ধারণা সাতক্ষীরার বাজারে আম উঠায় তরমুজের প্রতি আগ্রহ কমেছে ক্রেতাদের।

সাতক্ষীরার সুলতানপুর বড় বাজারের পাইকারি সবজি বিক্রেতা মেসার্স ফাহিমা সবজি ভান্ডারের স্বত্ত্বাধিকারী ওমর ফারুক বলেন, এখন প্রতিমণ তরমুজ বিক্রি করছি ২০০-৪০০ টাকায়। দাম অনেক কম তবুও ক্রেতা পাওয়া যাচ্ছে না। তরমুজ পচে যাচ্ছে বাধ্য হয়ে ফেলে দিতে হচ্ছে।

সুলতানপুর বড় বাজারের খুচরা তরমুজ ব্যবসায়ী মেসার্স সরদার ইন্টার ন্যাশনালের স্বত্ত্বাধিকারী বাচ্চু মোড়ল জানান, প্রতি কেজি তরমুজ বিক্রি করছি ১২ টাকা কেজি দরে। ডাকলেও এখন তরমুজের ক্রেতা পাওয়া যাচ্ছে না। দাম শুনে চলে যাচ্ছে অনেক ক্রেতা।

খুচরা তরমুজ বিক্রেতা হাবিবুর রহমান বলেন, আগে প্রতি কেজি তরমুজ বিক্রি করেছি ৫০-৬০ টাকা। দিনে কমপক্ষে ৫ মণ তরমুজ বিক্রি হতো। এখন প্রতি কেজি ছোট সাইজের ৫-৭ টাকা এবং বড় সাইজের ১৫ টাকা বিক্রি করছি। দাম কম তবুও দিনে ১মণ তরমুজও বিক্রি হচ্ছে না।

বাজারের তরমুজ বিক্রেতা আনসার আলী বলেন, খুব লোকসানে পড়ে গেছি। হঠাৎ তরমুজের বাজারে ধ্বস নেমেছে। বাজারে সরবরাহ বেশি থাকায় দাম কমেছে। আগে দাম বেশী থাকলেও ক্রেতা ছিল। কিন্তু এখন দাম কম তবুও প্রায় ক্রেতা শূন্য বাজার।আমরা মনে করছি বাজারে প্রচুর পরিমাণ আম বিক্রি শুরু হয়েছে এ কারনে তরমুজের প্রতি আগ্রহ হারিয়ে ফেলেছে।

রেজাউল করিম বলেন, তরমুজের দাম কমেছে শুনে বাজারে এসেছিলাম দেখতে ঘটনা সত্যি। বাজারের সব থেকে তরমুজ ১০ টাকা কেজি বিক্রয় হচ্ছে যা এখান থেকে ৫-৭ দিন আগে ৪৫-৬০ টাকা কেজি দরে বিক্রয় হয়েছিল। আমরা ৫-৬ জন মিলে ৫৫ কেজি কিনে নিয়ে সবাই ভাগ নিয়েছি।

সাতক্ষীরা বড় বাজারের কাঁচা মাল ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহিম বাবু জানান, ১০-১৫ দিন আগে প্রতিদিন ৫-৬ ট্রাক তরমুজ বিক্রি হয়েছে। দামও ছিল বেশী কিন্তু এখন দাম কম তরমুজের আকার হিসেবে ৫ টাকা থেকে ১০-১৫ টাকা। এ বছর তরমুজের ফলন বেশী হওয়ায় বাজারে সরবরাহ বেশী দামও কমেছে। বর্তমানে বাজারে আম আসায় তরমুজের প্রতি আগ্রহ হারিয়ে ফেলেছেন ক্রেতারা। সে কারণ দামও পড়ে গেছে।

সাতক্ষীরা জেলা কৃষি ও বিপনন কর্মকর্তা আবু সালেহ মোহাম্মদ মহসিন হোসেন বলেন, ১০-১২ দিন আগেও রমজান মাসে তরমুজের অনেক চাহিদা ছিল। চাহিদা বেশী থাকা ও বাজারে সরবরাহ কম থাকার কারণে দামও ছিল বেশী। বর্তমানে বাজারে আমও উঠে গেছে সেকারণে তরমুজের ক্রেতা সংকট দেখা দিয়েছে। এ ছাড়া তরমুজের ফলন খুব বেশী হওয়ায় শেষ মুহূর্তে বাজারে এখন তরমুজের সরবরাহ অনেক বেশী। সরবরাহ বেশী থাকায় মূল্য কমে গেছে। বর্তমানে পাইকারি ও খুচরা বাজারে ৫ টাকা থেকে সর্বোচ্চ ১৬ টাকায় বিক্রি হচ্ছে ।

আরো খবর »

খাতুনগঞ্জে বেড়েছে মসলা জাতীয় পণ্যের দাম

Tanvina

২০৩০ সালে দেশ ক্ষুধা-দারিদ্রমুক্ত হবে : অর্থমন্ত্রী

Tanvina

গ্যাস-বিদ্যুতের দাম বাড়লে শিল্পে বিরূপ প্রভাব পড়বে-বিজিএমইএ

Tanvina