27 C
Dhaka
বুধবার, সেপ্টেম্বর ২২, ২০২১
Corporate Sangbad | Online Bangla NewsPaper BD
শেয়ার বাজার

স্ট্যাবিলাইজেশন ফান্ডে অবন্টিত লভ্যাংশের ২৬০ কোটি টাকা জমা

নিজস্ব প্রতিবেদক : পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত বিভিন্ন কোম্পানির অবন্টিত লভ্যাংশের ২৬০ কোটি টাকা ক্যাপিটাল মার্কেট স্ট্যাবিলাইজেশন ফান্ডে (সিএমএসএফ) জমা দিয়েছে। গত ১৩ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত এই অর্থ ফান্ডে জমা হয়েছে। যদিও পুঁজিবাজারের নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) এই লভ্যাংশ জমা দেওয়ার জন্য গত ৩০ আগস্ট পর্যন্ত সময় বেধেঁ দিয়েছিল।

এ বিষয়ে গত ১১ আগস্ট বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব পাবলিকলি লিস্টেড কোম্পানিজের (বিএপিএলসি) পক্ষ থেকে সময় বাড়ানোর আবেদন করা হয়েছিল। কিন্তু ২৫ আগস্ট বিএসইসির পক্ষ থেকে তা না মঞ্জুর করে দেওয়া হয়।

বিএসইসি সূত্রে জানা গেছে, কোম্পানিগুলো ২৬০ কোটি টাকা জমা দিলেও ৩৩৫ কোম্পানির আছে অন্টিত নগদ লভ্যাংশ ছিল প্রায় ৯৫৮ কোটি টাকা। তবে স্ট্যাবিলাইজেশন ফান্ডে জমা দেওয়ার নির্দেশনার পরে অনেক কোম্পানি তাদের শেয়ারহোল্ডারদের মধ্যে তা বিতরণ করেছে। ফলে অন্টিত লভ্যাংশের পরিমাণ কমে এসেছে।

তাই পূণ:রায় যাচাই করা ছাড়া বর্তমানে প্রকৃত অবন্টিত লভ্যাংশের পরিমাণ বলা কঠিন। এ বিষয়ে পূণ:রায় যাচাই করা হবে।

বিএসইসির অনুসন্ধানে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত বিভিন্ন কোম্পানিতে শেয়ারহোল্ডারদের অদাবিকৃত ২১ হাজার কোটি টাকার লভ্যাংশ পড়ে থাকার বিষয়টি উঠে আসে। এই লভ্যাংশ পড়ে থাকার কারন হিসেবে রয়েছে- শেয়ারহোল্ডারদের ঠিকানা না পাওয়া, ও ওয়ারিশ নিয়ে জটিলতা। এই পরিস্থিতিতে ওই পড়ে থাকা লভ্যাংশকে পুঁজিবাজারের উন্নয়নে ব্যবহারের উদ্যোগ নেয় নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)।

যেসব প্রতিষ্ঠানের কাছে শেয়ারহোল্ডারদের ৩ বছরের অধিক সময় ধরে অর্থ-শেয়ার, নন রিফান্ডেড পাবলিক সাবস্ক্রিপশনের অর্থ রয়েছে, সেগুলো স্ট্যাবিলাইজেশন ফান্ডে স্থানান্তর করার নির্দেশ দেওয়া হয়। লভ্যাংশ ঘোষণা বা অনুমোদনের দিন বা রেকর্ড ডেট থেকে তিন বছর হিসাবে পড়ে থাকা অর্থ তহবিলে জমা দিতে হবে।

এই ফান্ড পরিচালনা বা ব্যবহারের জন্য গত ২২ আগস্ট প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সাবেক মুখ্য সচিব ও জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) চেয়ারম্যান নজিবুর রহমানকে প্রধান করে ১০ সদস্যের পর্ষদ অনুমোদন দিয়েছে বিএসইসি।

এছাড়া এ ফান্ড ব্যবস্থাপনার জন্য একজন চিফ অব অপারেশন (সিওও) পদে একজনকে মনোনয় দেবে বিএসইসি।


আরো খবর »

কিউআইও’র মাধ্যমে সলিড ফিড অর্থ উত্তোলন করবে

Tanvina

ন্যাশনাল ব্যাংকের পর্ষদ সভা ২৭ সেপ্টেম্বর

Tanvina

মালেক স্পিনিংয়ের দীর্ঘমেয়াদি রেটিং ‘এএ’

Tanvina