29 C
Dhaka
বৃহস্পতিবার, অগাস্ট ৫, ২০২১
Corporate Sangbad | Online Bangla NewsPaper BD
শেয়ার বাজার

২০ জুন ঢাকা ডাইংয়ের পর্ষদ সভা

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত বস্ত্র (টেক্সটাইল) খাতের কোম্পানি ঢাকা ডাইং লিমিটেডের পরিচালনা পর্ষদের সভার তারিখ ঘোষণা করা হয়েছে। কোম্পানিটির পর্ষদ সভা আগামী ২০ জুন দুপুর ২টায় অনুষ্ঠিত হবে। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সূত্র জানায়, সভায় কোম্পানিটির ৩০ জুন,২০১৮, ২০১৯ ও ২০২০ সমাপ্ত হিসাব বছরের নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করা হবে। পর্ষদ আলোচিত প্রতিবেদন এজিএম সভায় অনুমোদন করলে তা প্রকাশ করবে কোম্পানিটি।

কোম্পানিটি সর্বশেষ ২০১৭ সালে বোর্ড সভা করলেও কোনো ডিভিডেন্ড ঘোষণা করেনি। ওই বছর কোম্পানিটি ধারাবাহিকভাবে লোকসান দেখিয়েছে। এর মধ্যে- প্রথম প্রান্তিকে ৭৯ পয়সা, দ্বিতীয় প্রান্তিকে ৭৮ পয়সা এবং তৃতীয় প্রান্তিকে ৯৪ পয়সা লোকসান দেখিয়েছে। যদিও কোম্পানিটি ২০১৩ থেকে ২০১৫ পর্যন্ত প্রতি বছর ১০ শতাংশ করে স্টক ডিভিডেন্ড দিয়েছিল।

এদিকে ডিএসইর তথ্য অনুযায়ী, সর্বশেষ ১৭ টাকা ৪ পয়সা মূল্য কোম্পানিটির শেয়ার লেনদেন হয়। গতকাল শেয়ারের সর্বশেষ ও সমাপনী দর ছিল ১৭ টাকা ৩ পয়সা। গত এক বছরের শেয়ার লেনদেন এর সর্বোচ্চ মূল্য ছিল ১৭ টাকা ৮ পয়সা এবং সর্বনিম্ন ছিল ৩ টাকা ৪ পয়সা।

কোম্পানিটির অনুমোদিত মূলধন ৩ শত কোটি টাকা ও পরিশোধিত মূলধন ৮৭ কোটি ২০ লাখ টাকা। আর সঞ্চিত মূলধন ৪৬ কোটি ৩২ লাখ ৮০ হাজার টাকা। কোম্পানিটির মোট শেয়ারের মধ্যে উদ্যোক্তা-পরিচালকদের হাতে আছে ৩০.৪৫ শতাংশ, প্রতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের হাতে ২১.৫৮ শতাংশ, আর বিদেশী বিনিয়োগকারীদের হাতে ০.১৯ শতাংশ এবং বাকী ৪৭.৭৮ শতাংশ শেয়ার আছে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের হাতে। কোম্পানিটি ২০০৯ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভূক্ত হয়ে বর্তমানে ‘জেড’ ক্যাটাগরিতে অবস্থান করছে।

উল্লেখ্য, গত ৬ জুন ২০২১ তারিখে উচ্চ  আদালত কোম্পানিটিকে এজিএম করার অনুমতি দেন। ডিএসই তথ্যমতে, ঢাকা ডায়িংয়ের ২০১৮-১৯ হিসাব বছরের এজিএম করতে আর কোনো বাধা নেই।

কোম্পানিটি আদালতের নির্দেশের আট সপ্তাহের মধ্যে এজিএম অনুষ্ঠিত করতে পারবে। এর আগে ঢাকা ডায়িং অ্যান্ড ম্যানুফ্যাকচারিং কোম্পানির গ্যাসলাইন পুনরায় চালু করতে তিতাস গ্যাসট্রান্সমিশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন লিমিটেডকে নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। ২০২০ সালের ১৫ অক্টোবর বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ এ আদেশ দেন তিতাস গ্যাসকে। ২০১৬ সালের রিট পিটিশন উচ্চ আদালতের নির্দেশে সংশোধিত হয়েছে। এবং আবেদনকারী ওই সময় উচ্চ আদালতের আদেশে ১ কোটি টাকা জমা দিয়েছিল।এরপর আবেদনকারী আবার আপিল বিভাগের মৌখিক আদেশে ৩৫ লাখ টাকা জমা দিয়েছিল। আপিল বিভাগের নির্দেশে আদেশ প্রাপ্তির ১৫ দিনের মধ্যে তিতাস গ্যাস আবেদনকারীর কারখানায় পুনরায় গ্যাস সংযোগ দেবে। 

 উচ্চ আদালতের আদেশে আবেদনকারী প্রতি মাসে গ্যাস বিলের সঙ্গে বকেয়া ২০ লাখ টাকা জমা দেবে। উপোরক্ত সংশোধনের মাধ্যমে উচ্চ আদালতে সিভিল পিটিশন ফর লিভ টু আপিল নিষ্পত্তি করা হয়।


আরো খবর »

২ মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ট্রাস্টি সভা আজ

Tanvina

বিজিআইসির পর্ষদ সভা ৫ আগস্ট

Tanvina

সিটি জেনারেল ইন্স্যুরেন্স এ ক্যাটাগরিতে

Tanvina