33 C
Dhaka
এপ্রিল ১৭, ২০২১
Corporate Sangbad | Online Bangla NewsPaper BD
বিনোদন

সংগীতশিল্পী জানে আলম আর নেই

বিনোদন ডেস্ক : কিংবদন্তি সংগীতশিল্পী জানে আলম আর নেই। (ইন্নালিল্লাহি ওয়াইন্নইলাহি রাজিউন)।। মঙ্গলবার (২ মার্চ) রাত ১০টায় রাজধানীর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান সিডি চয়েসের কর্ণধার জহিরুল ইসলাম সোহেল মৃত্যুর খবরটি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, এক মাস আগে তিনি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হন। এরপর করোনা নেগেটিভ হলেও নিউমোনিয়াসহ নানা জটিল রোগে আক্রান্ত হন। এর জন্য গেল এক মাস বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তিনি চিকিৎসাধীন ছিলেন।

সোহেল আরও বলেন, অবস্থার অবনতি হলে মঙ্গলবার জানে আলম ভাইকে লাইফ সাপোর্ট দেওয়া হয়। কিন্তু শেষ রক্ষা হলো না। আলম ভাই আমাদের ফেলে চলে গেলেন। সারাক্ষণ হাসিখুশি মানুষটা এভাবে হুট করে চলে যাবেন, আমরা ভাবতেও পারিনি।’

সংগীত প্রযোজকদের সংগঠন এমআইবি’র মহাসচিব এসকে সাহেদ আলী পাপ্পু জানান, আজ বুধবার সকাল ১০টায় জানে আলমের মগবাজার বাসভবন এলাকায় জানাজা শেষে মরদেহ নিয়ে যাওয়া হবে জন্মস্থান মানিকগঞ্জের হরিরামপুরে। সেখানে পারিবারিক কবরস্থানে চিরশায়িত হবেন এই নন্দিত শিল্পী।

উল্লেখ্য, শিল্পী জানে আলমের জন্ম মানিকগঞ্জের হরিরামপুরে। গানের শুরুটা স্বাধীনতার পর পরই। প্রথম অ্যালবাম ‘বনমালী’ দিয়ে তৈরি হয় পরিচিতি। সে সময় পপ শিল্পী আজম খান তাকে অনেক অনুপ্রেরণা দিয়েছেন। পপ গানের মধ্যে ফোক ধাঁচ এবং অধ্যাত্মবাদ যুক্ত করে গান করা তার বৈশিষ্ট্য। মানুষের পছন্দের সাথে মিলিয়ে নতুন ধারা তৈরি করার জন্যই তার এমন গান করা।

জানে আলমের নিজের গাওয়া গানের সংখ্যা চার হাজারের মতো। এছাড়া তার লেখা, সুর এবং পরিচালনা করা গান রয়েছে প্রায় তিন হাজার। বাংলাদেশের অনেক পরিচিত শিল্পীই গেয়েছেন তার গান।

এদিকে ‘একটি গন্ধমের লাগিয়া আল্লাহ বানাইছে দুনিয়া’ খ্যাত গানের পপ শিল্পী জানে আলমের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন আরেক কিংবদন্তি শিল্পী ফকির আলমগীর।

তার অসংখ্য জনপ্রিয় গানের মধ্যে রয়েছে- ‘একটি গন্ধমের লাগিয়া’, ‘ইশকুল খুইলাছে’, ‘বৈশাখে তোমার সাথে হইলো আমার পরিচয়’, দিঘির জলে ঢিল মারিলে জলতরঙ্গ হইয়া যায়’, ‘কালি ছাড়া কলমের মূল্য যে নাই’ ইত্যাদি।


আরো খবর »

চিরনিদ্রায় শায়িত হলেন কবরী

উজ্জ্বল

বনানী কবরস্থানে সমাহিত হবেন কবরী

উজ্জ্বল

মিনা পাল থেকে যেভাবে ঢাকাই চলচ্চিত্রের ‘মিষ্টি মেয়ে’ কররী

উজ্জ্বল